গদ্য কবিতা সেই পুর্ণিমার রাত- কলমে বানীব্রত ( পশ্চিম বঙ্গ কলকাতা থেকে)
গদ্য কবিতা সেই পুর্ণিমার রাত কলমে বানীব্রত রুপোলী পুর্ণিমার  চাঁদের আলোটাতে প্রথম দেখা, মনে পড়ে? যেখানে চাঁদের আলোটা তোমার উজ্জ্বলতার কাছে হয়েছিল ম্রিয়মান। শরতের আকাশে ভেসে থাকা মেঘমালা ও লজ্জা পেয়েছিলো সেই দিন। হাল্কা শীতের চাদরে ঘিরে ছিলো চারধার, চারদিকে চাঁদের রুপোলী আলোটা ডানা মেলে ছিলো, রূপনারায়নের জল আমাদের প্রথম দেখার সাক্ষী ছিলো। ওই জলে […]
গদ্য কবিতা সেই পুর্ণিমার রাত কলমে বানীব্রত রুপোলী পুর্ণিমার  চাঁদের আলোটাতে প্রথম দেখা, মনে পড়ে? যেখানে চাঁদের আলোটা তোমার উজ্জ্বলতার কাছে হয়েছিল ম্রিয়মান। শরতের আকাশে ভেসে থাকা মেঘমালা ও লজ্জা পেয়েছিলো সেই দিন। হাল্কা শীতের চাদরে ঘিরে ছিলো চারধার, চারদিকে চাঁদের রুপোলী আলোটা ডানা মেলে ছিলো, রূপনারায়নের জল আমাদের প্রথম দেখার সাক্ষী ছিলো। ওই জলে সেই  সময় খেলেছিল আনন্দের ঢেউ। সেই নদীর বয়ে যাওয়া জলের মতো সময়ও বয়ে গেছে সেই পুর্ণিমা আসে রুপোলী চাঁদের আলো ও ছড়িয়ে পরে সেই রূপনারায়নের জলে আজও খেলে ঢেউ, জানি না ওই ঢেউয়ে আনন্দের ঢেউ আর বয়ে চলে কিনা, তোমার মনে পরে না বোধহয় সেই সন্ধিক্ষণ, অমানিশার অন্ধকার আচ্ছন্ন করে রাখে সবসময়, তবুও অপেক্ষা সেই রুপোলী পুর্ণিমার  চাঁদের আলোর।
Previousএকটি পেয়ারা গাছ
Nextসাতপাকে বাঁধা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *