উচিত শিক্ষা
মি. কৌশিক চক্রবর্তী 'চক্রবর্তী এন্ড কোঃ'-এর মালিক। পিতা-প্রপিতামহের দেওয়া এই কোম্পানিটি তাদের আমলে সুনাম অর্জন করেছিলো ওষুধের গুণের চমৎকারীত্বে। কিন্তু এখন কৌশিক বাবু মুনাফার লোভে জাল ওষুধের ব্যবসা শুরু করেছেন। ফলে সুনাম না থাকলেও কিছু দুর্নাম ছড়িয়ে পরেছে, ফলে খদ্দেরও কিছু কমে গেছে। কৌশিক বাবু যখন মুনাফার ব্যবসায় ফুলে ফেঁপে উঠছেন, তখনই হঠাৎ একদিন তার […]
মি. কৌশিক চক্রবর্তী 'চক্রবর্তী এন্ড কোঃ'-এর মালিক। পিতা-প্রপিতামহের দেওয়া এই কোম্পানিটি তাদের আমলে সুনাম অর্জন করেছিলো ওষুধের গুণের চমৎকারীত্বে। কিন্তু এখন কৌশিক বাবু মুনাফার লোভে জাল ওষুধের ব্যবসা শুরু করেছেন। ফলে সুনাম না থাকলেও কিছু দুর্নাম ছড়িয়ে পরেছে, ফলে খদ্দেরও কিছু কমে গেছে। কৌশিক বাবু যখন মুনাফার ব্যবসায় ফুলে ফেঁপে উঠছেন, তখনই হঠাৎ একদিন তার একমাত্র ছেলে প্রতীক অসুস্থ হয়ে পরলো। কত ডাক্তার দেখানো হলো, কত ওষুধ খাওয়ানো হলো, কিন্তু কিছুতেই কিছু হলো না, প্রতীকের অবস্থা দিন দিন খারাপের দিকেই যেতে লাগলো। কৌশিক কিছুতেই বুঝতে পারলো না, কেন তার ছেলে ভালো হচ্ছে না। কম্পাউন্ডারের সঙ্গে কথা বলে জানলেন যে তারই কোম্পানি থেকে ওষুধগুলো আনা হয়েছে। কৌশিক বাবু আতকে উঠলেন, বুঝলেন, তার ছেলেকে বাঁচানোর ক্ষমতা আর কারোর নেই। নিজেরই অজান্তে দু'ফোটা চোখের জল গড়িয়ে পরলো, মনটা হু হু করে উঠলো তার। জীবনে এই প্রথম বুঝি মৃত্যুর বিভীষিকাকে উপলব্ধি করতে পারলেন তিনি। ঠিক করলেন, সমস্ত জাল ওষুধ সিল করে দেবেন তিনি। এই পাপের ব্যবসায় আর নামবেন না, আর যেন কোন মানুষকে এই বিভীষিকাকে বরণ করতে না হয়। গল্প: উচিত শিক্ষা কলমে: অন্তরা ঘোষ কর্মকার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *