কবিতা: মৃত্যুদূত-কলামে তমাকর্মকার     
কবিতা, মৃত্যুদূত,         কলামে, তমাকর্মকার      তারিখ, ১৩, ৪,২০২০   মৃত্যুর পরোয়ানা নিয়ে মৃত্যুদূত দাঁড়ায়ে আছে দ্বারে, কী জানি কখন করোনার থাবা পরে কার ঘাড়ে | এক দেশ ছড়ায় মারণ ভাইরাস রোগ, যার জেরে বিশ্ববাসীর হয়  মরণ যন্ত্রণার  ভোগ | মানেনা ধনী গরীব, বোঝেনা টাকা কড়ি, ভাইরাসে মৃত্যু হলে সহজে ছোঁবেনা কেউ যতই থাকুক গাড়ি বাড়ী | […]
কবিতা, মৃত্যুদূত,         কলামে, তমাকর্মকার      তারিখ, ১৩, ৪,২০২০   মৃত্যুর পরোয়ানা নিয়ে মৃত্যুদূত দাঁড়ায়ে আছে দ্বারে, কী জানি কখন করোনার থাবা পরে কার ঘাড়ে | এক দেশ ছড়ায় মারণ ভাইরাস রোগ, যার জেরে বিশ্ববাসীর হয়  মরণ যন্ত্রণার  ভোগ | মানেনা ধনী গরীব, বোঝেনা টাকা কড়ি, ভাইরাসে মৃত্যু হলে সহজে ছোঁবেনা কেউ যতই থাকুক গাড়ি বাড়ী | নেই কোনো প্রতিষেধক, হয়নি তৈরী ঔষধ ভাইরাসের ফলে কিছু মানুষ হারাচ্ছে তার বিবেক বোধ | প্রতিদিন শঙ্কায় কাটাচ্ছে মানুষ জানিনা কী হবে বিশ্ব ভাইরাস মুক্ত হবে কবে? ছিলো বায়ুতে দূষণ, ছিলো বাতাসে পলিউশন তা নিয়ে হয়তো ছিলো নানা রকমের  কমপ্লিকেশন | কিন্তু কারো ঘরে মৃত্যু এভাবে আসতে পারতোনা বিনা এপ্লিকেশন, আজ রক্তলোলুপ নেকড়ের মত ভাইরাস তার থাবা উঁচিয়ে দাঁড়িয়ে আছে, কখন কার ঘাড়ে পরে কে জানে, জানেনা কে মরবে আর কে যাবে বেঁচে | কার নামে এসেছে মৃত্যু পরোয়ানা দেখছে যমপুরীর দ্বারের দ্বারী করোনায় মৃত্যু হলে জুটবেনা কবর স্মশান, জুটবে খালি লাস ফেলার গাড়ি |