বিশ্বজয়ী মহাপুরুষ -তুষার কান্তি দত্ত,
বিশ্বজয়ী মহাপুরুষ তুষার কান্তি দত্ত, হিমালয়ের মতো বক্ষ যাহার, অগ্ন্যুৎপাতের মত হৃদয়। যাহার বজ্রকন্ঠে নিক্ষিপ্ত হতো তোপধ্বনি, ক্ষয় নাই তার ক্ষয় নাই। লক্ষ বছর স্রত ধারায় অণু-পরমাণু কণা জমে, তৈরী যাহার বক্ষ,কিংবা হৃদপিণ্ড, তিনি তো সেই কালজয়ী মহাপুরুষ, বিরল এক নক্ষত্র বাঙালি জাতির বঙ্গবন্ধু। ১৭ই মার্চ ১৯২০সালের পূর্ব গগনে, উদিত হয়েছিল পরমাণুর শক্তি নিয়ে এক […]
বিশ্বজয়ী মহাপুরুষ তুষার কান্তি দত্ত, হিমালয়ের মতো বক্ষ যাহার, অগ্ন্যুৎপাতের মত হৃদয়। যাহার বজ্রকন্ঠে নিক্ষিপ্ত হতো তোপধ্বনি, ক্ষয় নাই তার ক্ষয় নাই। লক্ষ বছর স্রত ধারায় অণু-পরমাণু কণা জমে, তৈরী যাহার বক্ষ,কিংবা হৃদপিণ্ড, তিনি তো সেই কালজয়ী মহাপুরুষ, বিরল এক নক্ষত্র বাঙালি জাতির বঙ্গবন্ধু। ১৭ই মার্চ ১৯২০সালের পূর্ব গগনে, উদিত হয়েছিল পরমাণুর শক্তি নিয়ে এক রবি। সেই রবি আজ অনন্তকালের জন্য পৃথিবীর বুকে, হয়ে রইলেন মূর্তিমান এক প্রতিচ্ছবি। ক্ষণজন্মা তুমি জন্মেছিলে তাই, দিয়ে গেছো বাঙালির স্বাধীনতা। চিরঞ্জীবী কীর্তি গড়ে তুমি, উপাধি পেয়েছো বাঙালি জাতির পিতা। ৭ই মার্চের প্রকম্পিত তর্জনীর হুঙ্কার ছিল তোমার, যেন দাউদাউ করে জ্বলে ওঠা তোপধ্বনির দাবানল। প্রতিটা বাঙ্গালী দামালের রক্তের ধমনীতে, ছড়িয়ে ছিল সেদিন যুদ্ধের মনোবল। বঙ্গবন্ধুর এক তর্জনীর গর্জনে টর্নেডোর মতো, পাক হানাদার হয়েছিল খণ্ড-বিখণ্ড। লক্ষ কোটি বছরে আর পৃথিবীর বুকে জন্ম গ্রহন করবেনা না, হিমালয়ের মত এমন হৃদপিণ্ড।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *